শ্রীলঙ্কার কাছে হোয়াইটওয়াশ বাংলাদেশ

0
24
শ্রীলঙ্কার কাছে হোয়াইটওয়াশ বাংলাদেশ

কাগজ প্রতিবেদক: তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের সবকটি ম্যাচ হেরে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে হোয়াইটওয়াশের লজ্জায় ডুবল বাংলাদেশ। এ নিয়ে শ্রীলঙ্কার কাছে বাংলাদেশের পঞ্চম ও সবমিলিয়ে ২৫তম হোয়াইটওয়াশ।

কলম্বোর আর প্রোমাদাসা স্টেডিয়ামে শেষ ম্যাচে জয়ের জন্য বাংলাদেশের লক্ষ্য ছিল ২৯৫ রান। কিন্তু এই রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ১২২ রানের বিশাল ব্যবধানে পরাজিত হয় তামিম-মুশফিকরা। ৩৬ ওভার শেষে ১৭২ রানে অলআউট হয় বাংলাদেশ।

গত দুই ম্যাচের মতো আজও ব্যাট হাতে ব্যর্থ অধিনায়ক তামিম ইকবাল। তিন ম্যাচে তিনি করেন ২১ রান (০ + ১৯ + ২)। এছাড়াও দীর্ঘদিন পর দলে ফিরে আরেক ওপেনার এনামুল হক বিজয় আউট হন ১৪ রান করে।
তামিম ও বিজয় আউট হওয়ার পর একই পথেই হেঁটেছেন মুশফিক (১০), মোহাম্মদ মিথুন (৪) ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (৯)। তিনজনই শাকানার বলে ক্যাচ দিয়ে ফিরেছেন।

এরপর উইকেট বিলিয়ে দেওয়ার মিছিলে যোগ দেন সাব্বির রহমান (৭) ও মিরাজও (৮)। বাকিদের মাঝে একমাত্র ব্যতিক্রম সৌম্য। তার ব্যাট থেকে প্রতিরোধ হলেও ৮৬ বলে ৬৯ রানের ইনিংস খেলে ধনঞ্জয়ার হাতে ক্যাচ দিয়ে আউট হন সৌম্য সরকার।

শেষদিকে ২৭ বলে ৩৯ রানের ইনিংস খেলেন তাইজুল ইসলাম। তার এই ঝড়ো ইনিংসে ছিল ৫টি চার ও একটি ছক্কা।

লঙ্কানদের হয়ে ৩ উইকেট নিয়েছেন শানাকা। ২টি করে উইকেট গেছে রাজিথা ও কুমারার দখলে। ১টি করে উইকেট ঝুলিতে পুরেছেন ধনঞ্জয়া ও হাসারাঙ্গা।

এর আগে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ওভার শেষে ৮ উইকেট হারিয়ে ২৯৪ রান সংগ্রহ করে স্বাগতিক শ্রীলঙ্কা। ম্যাথিউজ করেন সর্বোচ্চ ৮৭ রান। ফিফটি করেন কুশল মেন্ডিস। লঙ্কান অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে ৪৬ ও কুশল পেরেরা করেন ৪২ রান।

টাইগারদের পক্ষে শফিউল ইসলাম এবং সৌম্য সরকার নেন ৩টি করে উইকেট। ১টি করে উইকেট নেন রুবেল হোসেন এবং তাইজুল ইসলাম।

এর আগে লঙ্কানদের কাছে চারবার হোয়াইটওয়াশের লজ্জা পেয়েছে টাইগাররা। সবগুলোই ছিল তিন ম্যাচের সিরিজ।