কেন্দ্রে ভোটারদের প্রচণ্ড ভিড় দেখেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

0
69

কাগজ প্রতিবেদক: ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের উপনির্বাচনে ভোটারদের উপস্থিতি নিয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা যা বলেছেন তা যথার্থই বলে মন্তব্য করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে মানিক মিয়া এভিউনিউয়ের রাজধানী উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।
এর আগে বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর উত্তরায় সিটি করপোরেশন নির্বাচনের একটি কেন্দ্র পরিদর্শনে গিয়ে নুরুল হুদা বলেন, ‘নির্বাচন কমিশন (ইসি) ভোটের পরিবেশ তৈরি করে। তারা ভোটার আনে না। তাই আজ দুই সিটির নির্বাচনে ভোটারের উপস্থিতি যে কম, এর দায় ইসির না। দায় প্রার্থী ও রাজনৈতিক দলগুলোরই।’
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আপনারা দেখছেন আজ সকাল থেকে বৃষ্টি হচ্ছিল। এ কারণে সকাল বেলায় হয়তো ভোটার কম দেখেছেন আপনারা। এখন পর্যায়ক্রমে যখন আবহাওয়া ভালো হয়ে যাবে, তখনই ভোটারদের উপস্থিতি বাড়তে থাকবে। এখনই দেখুন লম্বা লাইন, এটাই স্বাভাবিক। ’
ক্ষমতাসীন দল হিসেবে আপনারা দায় নেবেন কিনা-এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘নির্বাচন কমিশনার যেটা বলেছেন, সেটা যথার্থই বলেছেন। ভোট কীভাবে হবে সেটা পরিচালনা করছেন তিনি। ভোট দেওয়ার মালিক হলো ভোটাররা। বিভিন্ন রাজনৈতিক দল উদ্ধুদ্ধ করে ভোটারদের কেন্দ্রে নিয়ে আসবেন। এটাই স্বাভাবিক। এখন কে এলো, আর কে এলো না সেটা তো নির্বাচন কমিশনের দায়িত্ব নয়। আমাদের ভোটাররা ভোট দিতে আসছেন সেটাই হচ্ছে বাস্তবতা।’
আওয়ামী লীগ ছাড়া আর কারো কোনো পোলিং এজেন্ট পাওয়া যায়নি এবং শক্ত কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী তারা পাচ্ছেন না বলে ভোট দিতে তারা উৎসাহ হারিয়ে ফেলছেন। সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পাশেই দাঁড়ানো একজন প্রার্থীকে দেখিয়ে বলেন, ‘দেখুন আমার পাশেই আরেকজন প্রার্থী আছেন, শাহীন খান। তিনি আমার সঙ্গেও প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন। এখন মেয়র পদেও প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তিনিও তো আছেন। আবহাওয়ার কারণে সকালে ভিড়টা কম ছিল। আস্তে আস্তে আবহাওয়া ভালো হবে, ভোট কেন্দ্রে যথেষ্ট লোক আসবে। ভোট দিতে ভোটাররা উৎসাহ হারিয়ে ফেলেছেন এটা ঠিক নয়।’
কেন্দ্রে ভোটাররা আসবেন এবং তারা ভোট দেবেন বলেও আশা প্রকাশ করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘আমি তো দেখলাম। আমারও ভোট দিতে দু-এক মিনিট সময় লাগলো। কারণ যথেষ্ট লম্বা লাইন রয়েছে। সব জায়গাতেই ভোটারদের প্রচণ্ড ভিড়। সুন্দরভাবে ভোট হচ্ছে। ভোটাররা নির্বিঘ্নে ও নিরাপদে ভোট দিয়ে তাদের কাঙ্ক্ষিত প্রার্থীকে জয়যুক্ত করবেন এটাই আশা করি।’
আরেক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘নির্বাচন কমিশনের দিক নির্দেশনা অনুযায়ী আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তাদের দায়িত্ব পালন করছে। তারা জাতীয় নির্বাচনকে সুন্দরভাবে উঠিয়ে দিয়েছে। আমি আশা করি আমাদের এই ঢাকা উত্তরের নির্বাচন, সামনে উপজেলা নির্বাচন আসছে, সবগুলো নির্বাচনই সুন্দরভাবে তারা উঠিয়ে দেবে ও মোকাবিলা করবে।’
নির্বাচনী পরিবেশ নিয়ে সন্তুষ্ট কিনা জানতে চাইলে সাংবাদিকদের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘নির্বাচনের পরিবেশ তো সুন্দর ও সুষ্ঠু আছে। আপনারা তাকিয়ে দেখুন, কত ভোটার ভোট দিচ্ছে। আমি যতটুকু দেখেছি সবগুলোই সুন্দর ও শান্তিপূর্ণভাবে হচ্ছে।’