‘জাতীয় সংগীত’ নিয়ে নোবেলের মন্তব্যে ভারতীয় গণমাধ্যমগুলোতে প্রতিক্রিয়া

0
37
‘জাতীয় সংগীত’ নিয়ে নোবেলের মন্তব্যে ভারতীয় গণমাধ্যমগুলোতে প্রতিক্রিয়া

কাগজ ডেস্ক: ‘জাতীয় সংগীত’ প্রসঙ্গে ব্যক্তিগত মন্তব্য করে বেশ বিব্রত অবস্থায় পড়েছেন বাংলাদেশি তরুণ গায়ক মইনুল আহসান নোবেল। এ নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছেন এই শিল্পী। এবার তার সমালোচনায় মেতে উঠেছে ভারতের বিভিন্ন গণমাধ্যম।

মোটা দাগে সেসব মিডিয়া যা বলা হচ্ছে, কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে চূড়ান্ত অপমান করেছেন বাংলাদেশের নোবেল।

বৃহস্পতিবার ও গতকাল শুক্রবার নোবেল প্রসঙ্গে একাধিক প্রতিবেদন এসেছে কলকাতা থেকে প্রকাশিত শীর্ষস্থানীয় বাংলা সংবাদমাধ্যমগুলোতে।
এর মধ্যে টাইমস অব ইন্ডিয়ার বাংলা ভার্সন ‘এই সময়’ শিরোনাম করেছে, ‘রবীন্দ্রনাথকে চূড়ান্ত অপমান, নোবেলের ঔদ্ধত্যে চাবকাতে চান ইমন!’

এছাড়াও আরেকটি ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ‘সিএনএন-নিউজ এইটিনের’ বাংলা ভার্সনে পায় একই ধরনের শিরোনাম করা হয়েছে। নোবেলের সেই মন্তব্যের প্রসঙ্গে খবর ছাপিয়েছে তারা।

শিরোনাম করেছে, ‘বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত নিয়ে রবীন্দ্রনাথকে অপমান, নতুন বিতর্কে নোবেল’।

ওয়ান ইন্ডিয়া নামক আরেকটি পোর্টালে শিরোনাম করা হয়েছে, ‘নোবেলকে ‘চাবকে’ ঠিক করার বার্তা ইমনের!’

এছাড়াও দেশটির একটি অনলাইন গণমাধ্যমে লেখা হয়েছে, ‘রবীন্দ্রনাথকে বাংলাদেশি গায়কের চরম অপমান নিয়ে তোলপাড় সোশ্যাল মিডিয়া।’

আরেকটি পোর্টাল শিরোনাম করেছে, ‘নোবল করলেন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সৃষ্টিকে অপমান, ইমন চক্রবর্তী ক্ষুব্ধ!

অন্য একটিতে লেখা হয়েছে, ‘বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে নাকচ করে দিলেন নোবেল! উঠতি গায়কের ঔদ্ধত্যে তাকে চাবকাবেন প্রসিদ্ধ গায়িকা ইমন।’

সবগুলো সংবাদমাধ্যমের সেই খবরে নোবেল প্রসঙ্গে কলকাতার জনপ্রিয় গায়িকা ইমন চক্রবর্তীর বক্তব্যটিই ঘুরে ফিরে এসেছে। কলকাতার এক গায়িকা নোবেলের মন্তব্যের জন্য তাকে ‘চাবুক মারতে’ চান বলে ইচ্ছা প্রকাশ করে ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছিলেন।

সে বিষয়টিকেই শিরোনামে উল্লেখ করে সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে।

তবে টাইমস অব ইন্ডিয়া বলছে, ‘রবীন্দ্রনাথকে চূড়ান্ত অপমান’ অংশটি তাদের নিজস্ব মন্তব্য।

একই প্রতিবেদনের ভেতরে চুম্বক অংশ হিসেবে একটি লাইন দেয়া লেখা হয়েছে, ‘সরাসরি রবীন্দ্রনাথকে নাকচ করে দিলেন নোবেল।’