কেন্দুয়ায় পূর্ব বিরোধের জেরে মুদিদোকানিকে পিটিয়ে জখম

0
12
কেন্দুয়ায় পূর্ব বিরোধের জেরে মুদিদোকানিকে পিটিয়ে জখম

হুমায়ুন কবির: নেত্রকোণার কেন্দুয়ায় আশীষ দেব নামে এক মুদিদোকানিকে পিটিয়ে পূর্ব বিরোধের জের ধরে মারাত্মক জখম করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। আশীষ উপজেলার নওপাড়া ইউনিয়নের দনাচাপুর গ্রামের মৃত সুবোধ দেবের পুত্র এবং সাবেক ইউপি সদস্য সুবল দেবের ছোট ভাই। খবর পেয়ে পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে সোমবার (১৫ জুলাই) রাত সাড়ে দশটার দিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। এ ব্যপারে মঙ্গলবার (১৬জুলাই) কেন্দুয়া থানায় ছোট ভাই সঞ্জয় দেব লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। লিখিত অভিযোগ ও আহত আশীষ দেবের ভাতিজা দীনেশ চন্দ্র দেব জানান, গত চার মাস পূর্বে তাদের একটি জমির আল উদ্দেশ্যভাবে কেটে ফেলে একই গ্রামের ভানু দত্ত, আরাধন দত্ত, সুমন দত্ত গংরা। এতে বাধা দিলে তাদের উপর হামলা করে নারীসহ বেশ কজনকে মারাত্মক আহত করে। এ ব্যাপারে কেন্দুয়া থানায় মামলা হয়। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় মীমাংসার উদ্যোগ নেয়া হয়। সে লক্ষ্যে ওই মামলার বাদী সঞ্জয় চন্দ্র দেব আদালতে আসামীদের জামিনের জন্য সহায়তা করেন। আসামীরা জামিনে বেড়িয়ে এসে মীমাংসা করবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়ে হামলাসহ মারপিটের নানা হুমকি দিতে থাকে। এরই জের ধরে সোমবার রাত পৌনে দশটার দিকে বাদী সঞ্জয় দেবের ভাই মুদিদোকানী আশীষ দেব (৩৫) নওপাড়া বাজার থেকে দোকানের টাকা নিয়ে বাড়ীর উদ্দেশ্যে দনাচাপুর কালীবাড়ীর সামনে এলে প্রতিপক্ষ ভানু দত্ত, আরাধন দত্ত, সুমন দত্ত, স্বদেশ দত্ত, বিপুল দত্তসহ ১২/১৩ জন স্বশস্ত্র অবস্থায় অতর্কিতে হামলা চালিয়ে এবং পিটিয়ে আশীষ দেবকে মারাত্মক জখম করে। এসময় আশীষ দেবের সঙ্গে থাকা ৮৬ হাজার টাকাও ছিনিয়ে নিয়ে যায়। তাকে বাঁচাতে গিয়ে একই গ্রামের ইরাক মিয়া ও নুর মিয়া আহত হন। পরে রাতেই তাকে মূমূর্ষ অবস্থায় উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ব্যাপারে কেন্দুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা (ওসি) রাশেদুজ্জামান জানান, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।