জাতীয় কমিশন গঠন করে প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা প্রণয়নের দাবি: একাত্তরের মুক্তিযোদ্ধা

0
118
জাতীয় কমিশন গঠন করে প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা প্রণয়ের দাবি: একাত্তরের মুক্তিযোদ্ধা

কাগজ প্রতিবেদক: গতকাল ১৫ জুন জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে একাত্তরের মুক্তিযোদ্ধা সংগঠনের পক্ষ থেকে “মুক্তিযুদ্ধ ও মুক্তিযোদ্ধার সাংবিধানিক স্বীকৃতি, মর্যাদা পুনঃপ্রতিষ্ঠা এবং প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধার সঠিক ও চূড়ান্ত তালিকা প্রণয়ন” শীর্ষক এক গোলটেবিল আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি মো. রুস্তম আলী মোল্লা। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সংগঠনের সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. আবুল বাশার। গোলটেবিল আলোচনার মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন একাত্তরের মুক্তিযোদ্ধা সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক কামাল আহমেদ। মূল বক্তব্যে তিনি সংবিধানের প্রস্তাবনার প্রথম অনুচ্ছেদে ঐতিহাসিক সংগ্রামের পর “চূড়ান্ত পর্যায়ে মহান মুক্তিযুদ্ধের” মাধ্যমে এবং দ্বিতীয় অনুচ্ছেদে “বীর মুক্তিযোদ্ধাদের অংশগ্রহণ” শব্দগুলো সংযোজনের মধ্য দিয়ে মুক্তিযুদ্ধ ও মুক্তিযোদ্ধার সাংবিধানিক স্বীকৃতি এবং প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের সঠিক ও চূড়ান্ত তালিকা প্রণয়ন করার জন্য একটি জাতীয় কমিশন গঠনসহ মুক্তিযোদ্ধাদের সমষ্টিক স্বার্থে সংগঠনের পক্ষ থেকে সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব উত্থাপন করেন। মূল বক্তব্যের উপর আলোচনায় অংশ নিয়ে, ওয়ার ক্রাইমস ফ্যাক্টস ফাইন্ডিং কমিটির আহ্বায়ক ডা. এম এ হাসান গোলটেবিল আলোচনায় উপস্থাপিত বক্তব্যের সাথে সম্পূর্ণ সহমত পোষণ করে বলেন,মুক্তি সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধের মধ্যে আকাশ পাতাল পার্থক্য রয়েছে।

জাতীয় কমিশন গঠন করে প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা প্রণয়ের দাবি: একাত্তরের মুক্তিযোদ্ধা

তিনি আরো বলেন, একাত্তরের পূর্ব মুহুর্ত পর্যন্ত ছিল রাজনৈতিক সংগ্রাম এবং পরবর্তী মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে আমরা মুক্তিযোদ্ধারা সশস্ত্র লড়াইয়ের মাধ্যমে বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠিত করেছি। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক এম এম আকাশ, মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি তারিক আলী, ক্যাপ্টেন আকরাম আহমেদ,বীর উত্তম, ব্যারিস্টার ড. তুরিন আফরোজ, প্রসিকিউটর, আন্তর্জাতিক যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনাল;

ম. হামিদ, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও সহ-সভাপতি, ঘাতক দালাল নির্মুল কমিটি; ড. আবুল আজাদ, চেয়ারম্যান, মুক্তিযুদ্ধ একাডেমি ট্রাস্ট; ক্যাপ্টেন আলমগীর সাত্তার, বীরবিক্রম; বীর মুক্তিযোদ্ধা, লেখক কবি গীতিকার শওকত ওসমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা বিশিষ্ট ছড়াকার ও সাবেক অতিরিক্ত সচিব আলম তালুকদার, বজলুল হক বিশ্বাস, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক অতিরিক্ত সচিব; ড. রীতা সেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক যুগ্মসচিব: ড. শেখ বাতেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা, অধ্যাপক, আইউবি; ব্যারিস্টার নওরোজ এম আর চৌধুরী প্রমুখ। বিজ্ঞ আলোচকবৃন্দ উপস্থাপিত মূল বক্তব্যের প্রতি পূর্ণ সমর্থন ও সংহতি প্রকাশ করেন।