রায়পুরে মাছ ঘাট নিয়ে সংঘর্ষ: চেয়ারম্যানসহ শতাধিক নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা

0
16

তাবারক হোসেন আজাদ: লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আওয়ামীলীগের বিবাদমান দু’গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ, হামলা ও ভাংচুরের ঘটনায় পৃথক দু’টি মামলা করা হয়েছে। রোববার রাতে আওয়ামীলীগ নেতা আতাউল গণি ও আলতাফ বেপারী বাদী হয়ে রায়পুর থানায় এ মামলা দায়ের করেন। মামলা দুটিতে রায়পুর উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি মাষ্টার আলতাফ হোসেন হাওলাদার, তাঁর ভাই চরবংশী ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হোসেন, ইউনিয়ন আ.লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মফিজ খাঁন, সাবেক যুবলীগ নেতা মোখলেছুর রহমান পান্নু, আনোয়ার গাজী, সুমন হাওলাদারসহ ৯১ জনের নামোল্লে করে শতাধিক লোককে আসামী করা হয়। শুক্র ও শনিবার চরবংশীর চান্দারখাল এলাকায় মাছ ঘাটে টেবিল বসা নিয়ে পরাজিত উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী (স্বতন্ত্র-মোটরসাইকেল) আলতাফ হোসেন হাওলাদারের লোকজন বিজয়ী প্রার্থী (নৗকা) মামুনুর রশিদের কর্মী সমর্থকদের উপর দু’দিনে হামলা চালিয়ে চরবংশী ইউনিয়ন আ.লীগের অস্থায়ী দলীয় কার্যালয়সহ ৫টি ঘর-বাড়ীরে হামলায় চালিয়ে ভাংচুর ও আ.লীগের ২৬ নেতাকর্মী আহত হয়। রায়পুর থানার ওসি (তদন্ত) মো: সোলাইমান বলেন, দলীয় কার্যালয়সহ ঘর-বাড়ীতে হামলা-ভাংচুরের ঘটনায় আ.লীগের এক পক্ষ থেকে পৃথক দু’টি মামলা করা হয়েছে। এতে সাবেক উপজেলার চেয়ারম্যান, বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যানসহ ৯১ জন আসামীর নাম উল্লেখ করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত কোন আসামীকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। তবে গ্রেফতারের চেষ্টায় বিভিন্নস্থানে অভিযান চলছে।