চান্দিনায় বৃষ্টির কারনে আলুর ব্যাপক ক্ষতি

0
74

মো.ওসমান গনি: ঘন ঘন বৃষ্টির কারনে কুমিল্লার চান্দিনার আলু চাষীরা আলু নিয়ে বিপাকে পড়েছেন । এ বছর আবহাওয়া আলু চাষের অনুকূলে থাকায় কৃষকরা ব্যাপকমাত্রায় আলুর চাষ করে। আলুর ফলনও এ বছর অন্য বছরের তুলনায় ভাল হয়েছে। এখন চলছে আলু তোলার সময়,কিন্তু বৃষ্টির কারনে চাষীদের ব্যাপকমাত্রার ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। যার কারনে চাষীরা এখন চিন্তিত। উপজেলা কৃষি অফিসের তথ্য মতে, এ বছর চান্দিনা উপজেলার এক হাজার ৭৫৫ হেক্টর জমিতে আলু আবাদ হয়েছে। মওসুমজুড়ে আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় এবং বেশির ভাগ জমিতে আগাম রোপণের কারণে এ বছর বেশ আগেভাগেই আলু তোলা শুরু করেছেন কৃষক। এ পর্যন্ত প্রায় এক হাজার ২০০ হেক্টর জমির আলু তোলা হয়েছে। গত ২৫ ফেব্রুয়ারি থেকে টানাবর্ষণে বাকি প্রায় সাড়ে ৫০০ হেক্টর জমির আলু নিয়ে বেশ বেকায়দায় পড়েছেন উপজেলার সহস্রাধিক কৃষক। অনেক কৃষক এখন বৃষ্টি উপেক্ষা করে আলু উত্তোলন করছেন পানি আটকে থাকা জমি থেকে, কেউবা জমি থেকে পানি সরানোর চেষ্টা করছেন। আবার কেউ কেউ বৃষ্টি থামার অপেক্ষার প্রহর গুনছেন।প্রথম দফায় বৃষ্টি ৩/৪ চলমান থাকার পর বন্ধ হলে কৃষকরা মনে করছিল হয়ত আর বৃষ্টি হবে না।কিন্তু এখন আবার শুরু হয়েছে বৃষ্টি।যার কারনে অনেক কৃষক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বৃষ্টিসহ আলু তোলে ঘরে আনতে হবে।কারন এবছর আবহাওয়া মনে হয় তেমন ভালো যাবে না। উপজেলার কৃষ্ণপুর,রসুলপুর,মেহার,হারং,জিরুআইশসহ অন্যান্য গ্রামে এ বছর আলুর চাষ আগের চেয়ে অনেক বেশি পরিমানে হয়েছে। চান্দিনা উপজেলার জিরুআইশ গ্রামের আলুচাষি জহির জানান, বৃষ্টির কারনে মাঠের বেশির ভাগ জমির আলু পানির নিচে তলিয়ে যায়। গত কয়েক বছর ধরে আলুতে শুধু লোকসান আর লোকসান। এবার মওসুমের শুরু থেকে বেশ ভালোভাবেই চলছিল। কিন্তু শেষ মুহূর্তে বৃষ্টি শুরু হওয়ায় তাদের অনেক জমির আলু তোলা সম্ভব হচ্ছে না।