জয়পুরহাটে নলকূপ স্থাপনে বাঁধা ও মামলা, প্রতিবাদে কৃষকদের মানববন্ধন

0
73

শফিকুল ইসলাম: জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার বয়রা গ্রামের মাঠে নতুন করে একটি অগভীর নলকূপ স্থাপনে বাঁধা দিয়েছে একই গ্রামের প্রভাবশালীরা। আবার কয়েকজন কৃষকের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলাও দিয়েছেন তারা। ওই মাঠে জরুরী ভিত্তিতে একটি অগভীর নলকূপ স্থাপন ও মিথ্যা মামলা দ্রুত প্রত্যাহার করতে সকালে বয়রা গ্রামের সড়ক অবরোধ করে মানব বন্ধন, বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে ভূক্তভোগী কৃষক ও তাদের ছেলে-মেয়েরা। বিক্ষোভকারী কৃষকদের অভিযোগ, বয়রা গ্রামের কয়েকজন প্রভাবশালী একত্রিত হয়ে দীর্ঘদিন ধরে তাদের নিয়ন্ত্রনে থাকা একটি গভীর নলকুপ দিয়ে ওই মাঠের প্রায় এক হাজার বিঘা জমিতে সেচ দিয়ে আসছেন। অথচ সরকারি নিয়ম অনুযায়ী তারা একটি গভীর নলকূপ দিয়ে সর্বোচ্চ ২/৩’শ বিঘা জমিতে সেচ দিতে পারবেন। তাদের নিয়ন্ত্রেনে থাকা একটি মাত্র গভীর নলকূপ দিয়ে ওই মাঠের প্রায় এক হাজার বিঘা জমিতে সেচ দেওয়ায় ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে। ফলে উৎপাদনও কম হয় এবং তারা মৌসুম শেষে কৃষকদের গলায় পা দিয়ে সেচের মূল্যও নেয় বেশী। ওই মাঠে যেন নতুন করে আর কেউ অগভীর নলকূপ স্থাপন করতে না পারে সে কারণেই তারা পাম্প স্থাপনে বাঁধা দিয়ে গ্রামের অসহায় কয়েকজন কৃষকের বিরুদ্ধে মামলা দিয়েছে। যাতে করে কেউ যেন আর নতুন পাম্প স্থাপন করতে সাহস না পায়। তাদের ওই কৌশল থেকে বেড়িয়ে আসতে ওই গ্রামের কয়েকজন কৃষক মিলে মাঠে নতুন করে একটি সেচ পাম্প বসানোর উদ্যোগ নেয়। এ উদ্যোগে বাঁধা হয়ে দাঁড়ায় প্রভাবশালীরা। এতেও ক্ষান্ত না হয়ে প্রভাবশালীরা আবার নতুন করে ওই কৃষকদের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দিয়েছে। এরই প্রতিবাদে ওই গ্রামের অন্যান্য কৃষকরা একত্রিত হয়ে বিক্ষোভ মিছিল, মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে। প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য দেন বয়রা গ্রামের কৃষক হাবিবুর রহমান, খালেক মাস্টার, শাহাজান আলী,আব্দুল কাদের প্রমূখ। এ সময় বক্তারা ওই মাঠে নতুন করে সেচ পাম্প বসাতে প্রশাসনের সহযোগীতা কামনা করেন। পাশাপাশি অবিলম্বে তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা তুলে নেওয়ারও দাবী করেন। তাদের দাবী মেনে না নিলে পরবর্তীতে বৃহত্তর কর্মসূচি দিবেন বলেও হুঁষিয়ারী দেন কৃষকরা।